এনার্জি ড্রিংকস

এনার্জি ড্রিংকসের ক্ষতিকর প্রভাব

বেশিরভাগ এনার্জি ড্রিংকসে আছে প্রচুর পরিমানে ক্যাফেইন এবং সুগার। কোনও কোনও এনার্জি ড্রিংকসে আছে মাত্রাতিরিক্ত এলকোহল। সুগার ওজন বাড়াতে সহায়তা করে আর অতিরিক্ত ক্যাফেইন অনিদ্রা, বিরক্তি, ক্রোধপ্রবণতা, মাথাব্যাথা, বমিভাব, হজমের সমস্যা, স্থূলতা, উদ্বেগ ,খিঁচুনি, স্নায়বিক দুর্বলতা, মনোযোগে ঘাটতি এবং বিষণ্ণতা উৎপন্ন করে।

এছা্ড়া ইহা হৃদ স্পন্দনকে দ্রুত করে এবং উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিসের মাত্রাকে বাড়িয়ে দেয়। এনার্জি ড্রিংকস কোনও কোনও প্রচলিত ওষুধের সাথে খেলে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে। বয়ঃসন্ধিকালে ইহা স্বাস্থের উপর বিশেষ ক্ষতিকারক প্রভাব বিস্তার করে।

এনার্জি ড্রিংকসে ৩ থেকে ৫ গুন ক্যাফেইন বিদ্যমান, সমপরিমান কোমল পানিয় বা সোডা থেকে। সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে জানা গেছে এনার্জি ড্রিংকস খেয়ে হাসপাতালে আসা রোগীর সংখ্যা ২০০৭ থেকে ২০১১ তে দ্বিগুন হয়েছে। ক্যাফেইন কর্মক্ষমতা পরিবর্তন করে, আসক্তি বা নেশা সৃষ্টি করে, এবং অতি উচ্চ মাত্রায় এটা বিষাক্ত হতে পারে। প্রায় ৬৬% মানুষ এনার্জি ড্রিংকস পান করে যাদের বয়স ১৩ থেকে ৩৫ বৎসর।

২০১১ সালে আমেরিকান পেডিয়াট্রিক একাডেমী সুপারিশ করে-

সমস্ত শিশুদের এনার্জি ড্রিংকস এড়ানো উচিত, ইহার সম্ভাব্য স্বাস্থ্য ঝুকি ও শরিরের বৃদ্ধির উপর কু- প্রভাব এবং আসক্তি সৃষ্টির কারনে ।

শিশু ও বয়ঃসন্ধিকালের কখনই এনার্জি ড্রিংকস পান করা উচিত না ।

আমাদের দেশে কয়েকটি এনার্জি ড্রিংকে বিপজ্জনক মাত্রায় রাসায়নিক পদার্থ (প্রিজারভেটিভ) সোডিয়াম বেনজয়েট উপস্থিতি পাওয়া গেছে। বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা এ বিষয়ে গভীর শংকা প্রকাশ করে জানিয়েছেন, এসব পানীয় পান করলে কিডনি ও লিভার বিকল হতে পারে, সোডিয়াম বেনজয়েট উচ্চমাত্রায় গ্রহণ করলে মানুষের পরিপাকতন্ত্র নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশংকা রয়েছে। এছাড়া নানা রকম জটিল রোগ যেমন আলসার হওয়া বা গর্ভবতী নারীর ক্ষেত্রে গর্ভপাত বা অটিস্টিক শিশু জন্মের আশংকা রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *